জমে উঠেছে মেসি-পেদ্রি জুটি


আগের কয়েকটি ম্যাচের বিবর্ণ পারফরম্যান্সের ইতি টেনে স্বরূপে ফিরলেন লিওনেল মেসি। আর্জেন্টাইন এই মহাতারকা করলেন জোড়া গোল। তার পাশাপাশি দ্যুতি ছড়ালেন তরুণ স্প্যানিশ মিডফিল্ডার পেদ্রি। শুরুতে পিছিয়ে পড়েও তাদের নৈপুণ্যে অ্যাথলেতিক বিলবাওকে হারাল বার্সেলোনা। গতপরশু রাতে লা লিগার ম্যাচে ৩-২ গোলে জিতেছে রোনাল্ড কোমানের শিষ্যরা। তিন বছর পর অ্যাথলতিককে তাদের মাঠেই হারানোর স্বাদ পেয়েছে তারা।

সান মামেসে ইনাকি উইলিয়ামসের গোলে ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই পিছিয়ে পড়ে বার্সেলোনা। সমতায় ফিরতে অবশ্য তাদের বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি। চতুর্দশ মিনিটে হেড করে ফাঁকা জালে বল পাঠান অরক্ষিত পেদ্রি। গোল শোধ করে উজ্জীবিত হয়ে ওঠা অতিথিরা এগিয়ে যায় ৩৮তম মিনিটে। পেদ্রির সঙ্গে দারুণ বোঝাপড়ায় বল পেয়ে লক্ষ্যভেদ করেন ৩৩ বছর বয়সী মেসি। ডি-বক্সের ভেতর থেকে বাঁ পায়ের নিচু শটে তিনি খুঁজে নেন জাল। বিরতিতে যাওয়ার আগে ব্যবধান আরও বাড়াতে পারত বার্সা। তবে ফরাসি ফরোয়ার্ড আঁতোয়ান গ্রিজমান ও মেসি নিশানা ভেদ করতে ব্যর্থ হন।
৫৩তম মিনিটে অ্যাথলেতিক গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন রেকর্ড ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী মেসি। কিন্তু অফসাইডের কারণে তার গোলটি বাতিল হয়। ছয় মিনিট পর আরেকবার হতাশ হতে হয় তাকে। ডি-বক্সের বাইরে থেকে তার ডান পায়ের জোরালো শট পোস্টে লেগে মাঠের বাইরে চলে যায়।
তিন মিনিট পর আর আটকানো যায়নি মেসিকে। গ্রিজমানের পাসে স্কোরলাইন ৩-১ করেন তিনি। বার্সা অধিনায়কের উঁচু শট পোস্টের নিচের দিকে লেগে জালে পৌঁছায়। চলতি লা লিগায় মেসির এটি নবম গোল। তার চেয়ে বেশি গোল নেই আর কারও। সমান সংখ্যক গোল রয়েছে সেলতা ভিগোর ইয়াগো আসপাস, অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের লুইস সুয়ারেজ ও ভিয়ারিয়ালের জেরার্দ মোরেনোর নামের পাশে। ৭২তম মিনিটে হ্যাটট্রিক প্রায় পেয়েই গিয়েছিলেন মেসি। কিন্তু ভাগ্য সঙ্গ দেয়নি তাকে। পেদ্রির পাসে তার বাঁ পায়ের শট ফের বাধা পায় পোস্টে। নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে ম্যাচে তৈরি হয় রোমাঞ্চ। ইকার মুনিয়াইনের দারুণ গোলে ব্যবধান কমায় স্বাগতিকরা। এতে অবশ্য দায় আছে মেসির। নিজেদের সীমানায় তার ভুলেই বল পেয়ে আক্রমণে উঠেছিল অ্যাথলেতিক। তবে বাকিটা সময় নির্বিঘ্নে পার করে জয় নিয়ে মাঠে ছাড়ে বার্সেলোনা।
বার্সেলোনার তিনটি গোলই ছিল দলীয় বোঝাপড়ার ফল। আরও বেশ কিছু সুযোগ তৈরি করেছিল কাতালান দলটি। মেসির দুটি শট পোস্টে বাধা না পেলে ব্যবধান হতে পারতো বড়। দলের এমন গোছালো পারফরম্যান্সে ভীষন খুশি কোমান। লক্ষ্যে এগিয়ে যেতে ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে ধারাবাহিকতা ধরে রাখার তাগিদ দিলেন তিনি, ‘ঠিক এভাবেই আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। আমার মনে হয়, পুরো সময় আমরা ম্যাচটি নিয়ন্ত্রণ করেছি।’ এই জয়ে মৌসুমে প্রথমবারের মতো পয়েন্ট তালিকার তিনে উঠেছে বার্সেলোনা। শীর্ষে থাকা অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের চেয়ে অবশ্য এখনও তারা ৭ পয়েন্টে পিছিয়ে। ম্যাচও দুটি কম খেলেছে মাদ্রিদের দলটি। তবে শিরোপার লড়াই এখনও উন্মুক্ত আছে বলেই মনে করেন কোমান, ‘শিরোপার লড়াই এখনও উন্মুক্ত, কারণ মৌসুমটা অনেক লম্বা। চোট সমস্যা থাকতে পারে, দলগুলো ছন্দ হারাতে পারে এবং এখন যারা দারুণ গতিতে এগিয়ে চলেছে তারা দিক হারাতে পারে।’
সান মামেসে মেসি-পেদ্রির বোঝাপড়া ছিল দারুণ। অনেকের মতে, আর্জেন্টাইন তারকার হয়তো এটাই মৌসুমের সেরা পারফরম্যান্স। জোড়া গোল করে আসরে সর্বোচ্চ (৯টি) গোলদাতার তালিকায় যৌথভাবে শীর্ষে উঠে আসা মেসির ভ‚য়সী প্রশংসা করেছেন কুমান, ‘প্রথম দিন থেকেই মেসি নিজেকে উজাড় করে দিচ্ছে। সর্বোচ্চ পর্যায়ে সে অনেক বছর ধরে আছে। মনে হচ্ছে, এখন সে আরও বেশি কার্যকর। সবসময় সে তার সামর্থ্যরে প্রমাণ দিয়েছেৃএবং আজ সে দুটি গোলও করেছে।’ আলাদা করে ১৮ বছর বয়সী পেদ্রির প্রশংসা করতেও ভুল করেননি কোমান, ‘বয়সের তুলনায় সে অনেক বেশি পরিণত খেলোয়াড় এবং সবচেয়ে গুরুত্বপ‚র্ণ হলো সে মাথা খাটিয়ে খেলে।’ লিগে আগামীকাল গ্রানাদার আতিথ্য নেবে বার্সা।

এই রকম আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.