মেদভুঁড়ি বাড়ে যে কারণে


মেদ বা ভুঁড়ি। অস্বস্তিকর একটি জিনিস। যারা চিকন বা পাতলা তারা অনেকেই মোটা হতে চান। আবার যারা মোটা বা ভুঁড়িওয়ালা তারা নিজেকে স্লিম রাখার জন্য কত কিই না করেন। কিন্তু আসলে আমরা হয়ত অনেকেই জানি না কী কারণে মেদভুঁড়ি বাড়ে। আসুন জেনে নেই, মেদভুঁড়ি বাড়ার উল্লেখযোগ্য কিছু কারণ।

মেদভুঁড়ি তথা মোটা হওয়ার সমস্যাটা আগে কেবল পশ্চিমা উন্নত বিশ্বের মানুষেরই একচেটিয়া ব্যাপার ছিল। কিন্তু আজকাল দেখা যাচ্ছে, মোটা হওয়ার প্রবণতা এশিয়া-আফ্রিকার দরিদ্র মানুষের মধ্যেও কম নয়। অতিরিক্ত খাদ্য গ্রহণই হলো মোটা হওয়ার প্রধান কারণ। ইউরোপ-আমেরিকায় ফাস্টফুড, আইসক্রিম, চকলেট, কোমল পানীয় প্রভৃতি মুখরোচক খাদ্য মোটা হওয়ার প্রধান উপাদান।

জেনেটিক্যালি মডিফাইড (জিএম) ফুড আসছে। ফার্মের মাছ, মুরগির ডিম, দুধে রয়েছে অতিরিক্ত হরমোন, যা অনেক সময় শরীরে মেদ বৃদ্ধিতে সহায়ক। আগে মানুষ ঘরের আঙ্গিনার দুমুঠো শাকসবজি, পুকুরের দুটি পুঁটি মাছ, হাড়জিরজিরে মুরগি খেয়ে দিন কাটাত। এখন সেই দিন শেষ। আগে গ্রামের মানুষের দিনে ৫-১০ মাইল হেঁটে কাজকর্ম করা ছিল সাধারণ ব্যাপার। এখন ঘর থেকে বের হলেই বাস কিংবা ইজিবাইক।

এই রকম আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *